পারিবারিক নিরাপত্তার মূলসূত্রগুলি

ব্যস্ত অভিভাবকদের জন্য, অনলাইনে আপনার পরিবারকে কীভাবে সুরক্ষিত রাখবেন সেই বিষয়ে এই হল কিছু দ্রুত পরামর্শ৷

  1. অনলাইন নিরাপত্তা নিয়ে আপনার পরিবারের সাথে কথা বলুন৷ আপনার পরিবাদের নিয়মাবলী এবং প্রযুক্তিতে প্রত্যাশাগুলি এবং অনুপযুক্ত ব্যবহারের পরিণামগুলির সম্বন্ধে স্বচ্ছ ধারণা রাখুন৷ এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণভাবে, যখন তারা কঠিন সিদ্ধান্তগুলির সম্মুখীন হয় তখন নির্দেশিকা চাইতে তারা যথেষ্ট স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করছেন কিনা সেই বিষয়ে নিশ্চিত হন৷ এটি আপনার পরিবারকে তাদের নিজের মতো করে ইন্টারনেট ব্যবহারে নিরাপদ বোধ করতে, এবং যখন তাদের কোনো প্রশ্ন থাকে তখন কার বিষয়ে আপনাকে জিজ্ঞাসা করবেন তা জানতে সহায়তা করতে পারে৷
  2. একসাথে প্রযুক্তি ব্যবহার করুন৷ অনলাইন নিরাপত্তার সম্বন্ধে শেখানোর এটি একটি ভালো উপায় এবং এটি আপনাকে আপনার পরিবারের প্রয়োজনের সাথে সাথে তাদেরকে অনলাইন নিরাপত্তার বিষয়গুলি উদ্দেশ করাতে সুযোগ সৃষ্টি করে৷
  3. অনলাইন পরিষেবা এবং সাইটগুলি নিয়ে আলোচনা করুন৷ আপনার পরিবারের সদস্যরা কোন ধরণের সাইটগুলিতে যেতে চান এবং প্রতিটি সদস্যের জন্য কোনটা উপযুক্ত সেই বিষয় নিয়ে তাদের সাথে কথা বলুন৷
  4. পাসওয়ার্ডগুলি সুরক্ষিত রাখুন৷ অনলাইনে কীভাবে নিরাপদ পাসওয়ার্ড সেট করতে হয় সে বিষয়ে জানতে আপনার পরিবারকে সহায়তা করুন৷ আপনার পরিবারকে, পিতামাতার মতো বিশ্বস্ত প্রাপ্তবয়স্কদের ছাড়া তাদের পাসওয়ার্ডগুলি অন্য কাউকে না দেওয়ার কথা মনে করিয়ে দিন৷ যখন তারা বিদ্যালয়ে, কোনো ক্যাফেতে, অথবা গ্রন্থাগারের মতো সর্বজনীন কম্পিউটারগুলি ব্যবহার করে অনলাইন হবেন তখন নিশ্চিত করে নিন যে তারা যেন সেইসব কম্পিউটারের মাধ্যমে অনলাইন হওয়া অ্যাকাউন্টগুলি থেকে সাইন আউট হওয়ার বিষয়টিকে একটি অভ্যাসে পরিণত করে নেন৷
  5. গোপনীয়তা সেটিংস এবং ভাগ করা নিয়ন্ত্রণগুলি ব্যবহার করুন৷ চিন্তাভাবনা, ফটো, ভিডিও, এবং স্থিতির আপডেট এবং আরো অনেক কিছু ভাগ করার জন্য সেখানে অনেক সাইট রয়েছে৷ এই পরিষেবাগুলির অনেকে গোপনীয়তা সেটিংস এবং নিয়ন্ত্রণগুলি অফার করে যা আপনাকে আপনার সামগ্রী পোস্ট করার আগে এটি কারা দেখতে পাবেন তার সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করে৷ কোনটা সর্বজনীনভাবে ভাগ করা উচিৎ এবং কোনটা উচিৎ নয় সেই বিষয় নিয়ে আপনার পরিবারের সাথে কথা বলুন৷ পরিবার বা বন্ধুদের ব্যক্তিগত বিবরণ ব্যক্তিগত রাখার দ্বারা এবং সর্বজনীনভাবে ভাগ করা সামগ্রীতে লোকেদের চিহ্নিতকরণ না করার দ্বারা অন্যদের গোপনীয়তাকে সম্মান দিয়ে তাদেরকে সহায়তা করুন৷
  6. বয়সের সীমাবদ্ধতাগুলি পরীক্ষা করুন: Google সমেত - অনেক অনলাইন পরিষেবাতে - কারা তাদের পরিষেবাগুলি ব্যবহার করতে পারেন তার উপর বয়সের সীমা সীমাবদ্ধকরণ রয়েছে৷ উদাহরণস্বরূপ, একটি Google অ্যাকাউন্ট পেতে গেলে আপনাকে বয়সের প্রয়োজনীয়তা পূরণ করতে হবে, এবং কিছু Google পণ্য ১৮ বা তার বেশি বয়সের লোকেদের জন্য সীমাবদ্ধ৷ একটি অ্যাকাউন্টের সাইন আপের জন্য আপনার শিশুকে অনুমতি দেওয়ার আগে, সর্বদা ওয়েবসাইটের ব্যবহারের শর্তাবলী পরীক্ষা করুন এবং কোন সাইট এবং পরিষেবাগুলি তারা ব্যবহার করতে পারেন তার উপর যদি, আপনার পরিবারের নিয়মাবলী থাকে তবে আপনার শিশুকে সেই বিষয়ের স্পষ্ট ধারণা দিন৷
  7. দায়িত্বপূর্ণভাবে যোগাযোগ করার বিষয়ে আপনার পরিবারকে শেখান৷ এখানে একটি ভালো চলতি রীতি দেওয়া হল: যদি কারোর হয়ে আপনি এটি না বলেন, তবে এটিকে পাঠ্য বার্তা, ইমেল, তাত্ক্ষণিক বার্তা হিসাবে পাঠাবেন না বা কারোর পৃষ্ঠাতে একটি মন্তব্য হিসাবে পোস্ট করবেন না৷ আপনি অনলাইনে যা বলেন তা কীভাবে অন্য লোকেদের বোধ জাগায় সেইন বিষয়ে কথা বলুন এবং কোন ধরনের যোগাযোগ যথাযথ সেই বিষয়ে পরিবারের নির্দেশিকা তুলে ধরুন৷
  8. অন্য প্রাপ্তবয়স্কদের সঙ্গে কথা বলুন৷ আপনার বন্ধু, বর্ধিত পরিবার, শিক্ষক, প্রশিক্ষক এবং পরামর্শদাতাদের সাথে কথা বলতে থাকুন৷ যারা শিশুর সাথে কাজ করেন এমন অন্য পিতামাতা এবং পেশাদারাও, আপনার পরিবারের জন্য কোনটা সঠিক, বিশেষ করে আপনি অপরিচিত রয়েছেন এমন প্রযুক্তির বিষয়গুলি নিয়ে কাজ করেন সেক্ষেত্রে আপনাকে সহায়তা করতে পারেন৷
  9. আপনার কম্পিউটার এবং পরিচয় সুরক্ষিত রাখুন৷ যদি আপনার কাছে Chromebook না থাকে, যার জন্য অ্যান্টিভাইরাস সফ্টওয়্যারের প্রয়োজন হয় না, তাহলে অ্যান্টিভাইরাস সফ্টওয়্যার ব্যবহার করুন এবং সেটিকে নিয়মিতভাবে আপডেট করুন৷ কিছু কিছু ব্যক্তিগত তথ্য – যেমন সামাজিক নিরাপত্তা নম্বর, ফোন নম্বর বা বাড়ির ঠিকানা – এগুলি যাতে অনলাইনে পোস্ট করা না হয়ে সে বিষয়ে আপনার পরিবারের লোকেদের সাথে কথা বলুন৷ অজানা ব্যক্তিদের কাছ থেকে আসা ফাইলগুলি স্বীকার করা বা ইমেল সংযুক্তিগুলি খোলা যে উচিৎ নয় সেই বিষয়ে আপনার পরিবারের সদস্যদের জানান৷
  10. এটি চালু রাখুন৷ নিরাপদ থাকা এককালের জিনিস নয়—প্রযুক্তির উন্নতি হতে থাকে এবং সেই কারণে আপনার পরিবারের প্রয়োজনও বদলে যায়৷ আপনি একটি নিরবচ্ছিন্ন সংলাপ বজায় রাখছেন কিনা নিশ্চিত করুন৷ আপনার পরিবারের মূল আদর্শগুলিকে পুন:প্রতিষ্ঠিত করুন, সবার অগ্রগতি পরীক্ষা করে দেখুন, নিয়মিত আলোচনা করার জন্য কিছুটা সময় বার করুন৷

নিরাপত্তা সরঞ্জামগুলি

আপনার পরিবারকে নিরাপদ রাখার জন্য আপনাকে সাহায্য করতে সেরা ৫টি Google এর অনলাইন সুরক্ষা বৈশিষ্ট্য আবিষ্কার করুন৷

Google Play

সামগ্রীর রেটিং দ্বারা অ্যাপ্লিকেশানগুলি ফিল্টার করতে অভিভাবকীয় নিয়ন্ত্রণ ব্যবহার করুন

Google Play থেকে ডাউনলোড বা ক্রয় করা যেতে পারে এমন সামগ্রীগুলি সীমিত করতে আপনি অভিভাবকীয় নিয়ন্ত্রণ ব্যবহার করতে পারেন৷ এটি আপনাকে আপনার এবং আপনার পরিবারের জন্য যথাযথ সামগ্রী খুঁজে পেতে সহায়তা করে৷

আরো জানুন

আপনার ডিভাইসে প্লে স্টোর অ্যাপ্লিকেশান খুলুন৷

উপরের বাঁদিকের কোণে, মেনু আইকনে আলতো চাপ দিন৷

সেটিংস -এ আলতো চাপ দিন৷

অভিভাবকীয় নিয়ন্ত্রণ -এ আলতো চাপ দিন৷

অভিভাবকীয় নিয়ন্ত্রণ চালু করুন৷

একটি PIN তৈরি করুন৷

অ্যাপ্লিকেশান এবং গেম্স এ স্পর্শ করুন৷

পরিণত স্তর চয়ন করুন৷

YouTube

অনুপযুক্ত সামগ্রীগুলিকে বার করার জন্য একটি ফিল্টার সেট করুন

যখন আপনি YouTube এ ব্রাউজ করবেন তখন যদি আপনি প্রাপ্তবয়স্ক সামগ্রী অথবা বয়স-সীমাবদ্ধ সামগ্রীগুলি দেখতে না চান, তাহলে স্ক্রোল করে যেকোনো YouTube পৃষ্ঠার একেবারে নীচে চলে যান এবং নিরাপত্তা মোড সক্ষম করুন৷ নিরাপত্তা মোড অনুসন্ধান, প্রাসঙ্গিক ভিডিও, প্লেলিস্ট, শো ও চলচ্চিত্রগুলি থেকে সম্ভাব্য আপত্তিকর সামগ্রী ফিল্টার করে বার করে দিতে সাহায্য করে৷

আরো জানুন

স্ক্রোল করে যেকোনো YouTube পৃষ্ঠার একেবারে নীচে চলে যান এবং "নিরাপত্তা" বিভাগের ড্রপ-ডাউন মেনুতে ক্লিক করুন৷

নিরাপত্তা মোড সক্ষম বা অক্ষম করার জন্য চালু অথবা বন্ধ বিকল্প নির্বাচন করুন৷

এই সেটিংসটিকে লক করতে, আপনার Google অ্যাকাউন্টে সাইন ইন করুন৷

একবার আপনার সাইন ইন করা হয়ে গেলে, আপনার কাছে এই সেটিংসটিকে লক করার বিকল্প চলে আসবে৷

Chrome

আপনার পরিবার ওয়েবে কি দেখবে তা নিয়ন্ত্রণ করুন

যদি আপনি আপনার পরিবার ইন্টারনেটে কোন সাইটগুলি দেখতে পারে তা নিয়ন্ত্রণ করতে চান তাহলে আপনি Google Chrome- এ তত্ত্বাবধানে থাকা ব্যবহারকারীদের ব্যবহার করতে পারেন৷ তত্ত্বাবধানে থাকা ব্যবহারকারীদের সাথে আপনার ব্যবহারকারীরা যে পৃষ্ঠাগুলিতে গেছেন আপনি সেই পৃষ্ঠাগুলি দেখতে এবং যে সাইটগুলি আপনি চান না যে আপনার ব্যবহারকারী দেখুক সেগুলি অবরুদ্ধ করতে পারেন৷

আরো জানুন

আপনার Chromebook এ একটি তত্ত্বাবধানে থাকা ব্যবহারকারী সেট করতে, মূল সাইন-ইন স্ক্রীনের মাধ্যমে শুরু করুন এবং 'ব্যবহারকারী যোগ করুন' এ ক্লিক করুন৷

স্ক্রীনের ডান দিকে, 'একটি তত্ত্বাবধানে থাকা ব্যবহারকারী তৈরি করুন' নির্বাচন করুন৷

'একটি তত্ত্বাবধানে থাকা ব্যবহারকারী তৈরি করুন' এ ক্লিক করুন

যে অ্যাকাউন্টটি তত্ত্বাবধানে থাকা ব্যবহারকারীকে পরিচালনা করবে সেটিতে লগইন করুন এবং তারপরে পরবর্তীতে ক্লিক করুন৷

তত্ত্বাবধানে থাকা ব্যবহারকারী জন্য একটি ব্যবহারকারী নাম, পাসওয়ার্ড, এবং ছবি নির্বাচন করুন৷ পরবর্তীতে ক্লিক করুন৷

Android

এইমাত্র অনুমোদিত অ্যাপ্লিকেশান এবং গেমগুলির অ্যাক্সেস সীমাবদ্ধ করুন৷

আপনার সমস্ত জিনিস ভাগ না করে আপনি আপনার ট্যাবলেট ভাগ করতে চান? যেসব ট্যাবলেটে Android 4.3 বা তার থেকে উন্নত সংস্করণ রয়েছে, সেখানে আপনি একটি সীমাবদ্ধ প্রোফাইলগুলি তৈরি করতে পারেন যা অন্যান্য ব্যবহারকারীদেরকে আপনার ট্যাবলেটে থাকা বৈশিষ্ট্যগুলি বা সামগ্রীর অ্যাক্সেসকে সীমিত করবে৷

আরো জানুন

যদি আপনি ট্যাবলেটটির মালিক হোন, তাহলে 'সেটিংস → ব্যবহারকারীগণ → ব্যবহারকারী বা প্রোফাইল যোগ করুন' স্পর্শ করুন৷

সীমাবদ্ধ প্রোফাইল → নতুন প্রোফাইল স্পর্শ করুন, তারপর প্রোফাইলের নাম দিন৷

বৈশিষ্ট্য, সেটিংস ও অ্যাপ্লিকেশানগুলির জন্য অ্যাক্সেস পরিচালনা করতে 'চালু/বন্ধ' সুইচগুলি ও সেটিংস ব্যবহার করুন৷

লক স্ক্রীনে ফিরে যেতে পাওয়ার বোতামটি টিপুন, তারপরে নতুন প্রোফাইল আইকনটিকে স্পর্শ করুন৷

একবার সব কিছু করা হয়ে গেলে, হোম স্ক্রীনটি ফাঁকা দেখাবে৷ নতুন প্রোফাইলের মাধ্যমে শুরু করতে 'সমস্ত অ্যাপ্লিকেশান' আইকনটি স্পর্শ করুন৷

আরো নিরাপত্তা সরঞ্জাম দেখুন